রবিবার, ২১ জানুয়ারি ২০১৮

Beta Version

পূর্ব জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণার আহ্বান তুরস্কের

POYGAM.COM
ডিসেম্বর ১৩, ২০১৭
news-image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পূর্ব জেরুজালেমকে অবশ্যই ফিলিস্তিনের রাজধানীর স্বীকৃতি দিতে হবে বিশ্ববাসীকে। ওআইসির জরুরি বৈঠকের আগে এমন আহ্বান জানিয়েছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু।

গত বুধবার জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর প্রতিবাদে আজ ইস্তাম্বুলে ওআইসির জরুরি বৈঠক আহ্বান করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোগান। এতে যোগ দিচ্ছেন কমপক্ষে ৫০টি মুসলিম দেশের নেতারা ও মন্ত্রীরা। ট্রাম্পের ঘোষণায় মুসলিম বিশ্বজুড়ে দেখা দিয়েছে তীব্র ক্ষোভ।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, এমন ঘোষণায় মধ্যপ্রাচ্যে দেখা দিয়েছে ভয়াবহ অস্থিরতা। কিন্তু তাতে কর্ণপাত করছেন না ট্রাম্প বা ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। নেতানিয়াহুকে এক্ষেত্রে সর্বশেষ হতাশ করেছে ইউরোপীয়ান ইউনিয়ন। তারা ট্রাম্পের ঘোষণাকে প্রত্যাখ্যান করেছে। তবে তাতে কিছু এসে যায় না নেতানিয়াহুর।

নেতানিয়াহু ঘোষণা দিয়েছেন, জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী মানতেই হবে। তারপরেই ফিলিস্তিনকে আসতে হবে শান্তি প্রক্রিয়ায়। কিন্তু এর পাল্টা জবাব দিয়েছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু। তিনি বলেছেন, অন্যসব দেশসহ সবাইকে সবার আগে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিতে হবে। এ জন্য আমরা সবাই একত্রিত হবো। পূর্ব জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে আমরা অন্য দেশগুলোকে উৎসাহী করবো একই সিদ্ধান্তে।

১৯৬৭ সালের সীমান্তের ভিত্তিতে তা করতে হবে। উল্লেখ্য, মুসলিম, ইহুদি, খ্রিস্টানদের কাছে জেরুজালেম শহরটি অত্যন্ত পবিত্র স্থান। এটিকে ইসলামের তৃতীয় সর্বোচ্চ পবিত্র শহর বলে মনে করা হয়। আর ফিলিস্তিনি-ইসরাইলের মধ্যে যুগের পর যুগ সঙ্কটের মূলে রয়েছে এই শহর। এ অবস্থায় ট্রাম্প এই শহরকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন। এর কড়া জবাব দিয়েছে তুরস্ক। তারা বলেছে, এমন ঘোষণা দিয়ে ট্রাম্প বিশ্বজুড়ে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছেন, যার কোনো শেষ নেই। তাই ওয়াশিংটনকে তার অবস্থান পাল্টানোর আহ্বান জানাতে ওআইসির জরুরি সম্মেলন আহ্বান করেছে তুরস্ক।

এ সপ্তাহে কাভুসোগলু বলেছেন, সব রাষ্ট্রের কাছে তুরস্ক দাবি জানায় যারা ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি তারা যেন সেই স্বীকৃতি দেয় এবং যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তকে দৃঢ়তার সঙ্গে প্রত্যাখ্যান করে।

তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বুধবারের সম্মেলন থেকে পূর্ব জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী ঘোষণা করা হবে এবং ১৯৬৭ সালে মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধের সময় যে ভূখণ্ড দখল করেছিল ইসরাইল তা দখলমুক্ত করতে আহ্বান জানানো হবে ইসরাইলের প্রতি। ওই যুদ্ধে পূর্ব জেরুজালেম দখল করে নেয় ইসরাইল। এরপর তারা এর সীমানা বাড়াতেই থাকে। তবে তাদেরকে আন্তর্জাতিকভাবে এক্ষেত্রে স্বীকৃতি দেয়া হয়নি।

বুধবারের এই সম্মেলনে ভাষণ দেয়ার কথা রয়েছে ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের। এছাড়া উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি, সুদানের ওমর আল বশিরসহ ওআইসির শীর্ষ নেতাদের।

এ জাতীয় আরও খবর