সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭

Beta Version

এতো জ্ঞান কোথায় রাখি !

POYGAM.COM
নভেম্বর ২৭, ২০১৭
news-image

জ্ঞান বিলি করার খুব ইচ্ছে ছিল। ভালো মানের স্কুল প্রতিষ্ঠার জন্য নিজ দেশে কিছুদিন হন্যে হয়ে ঘুরেছি। কিন্তু যা দিয়ে স্কুল করবো, চাঁদার দাবি তার চেয়ে বেশি। গুম, খুনের ভয় সাথে নিয়ে সরকারী অফিসে দৌড়াদৌড়ি। এক অফিসারকে ভাই বলে সম্বোধন করলে তিনি বললেন— ‘আমি আপনার কেমন ভাই লাগি?’ পরে মনে হলো, উনাকে ‘স্যার’ বললে খুশি হতেন 😃!

বিদেশে ফিরে এলাম। মাথার মধ্যে জ্ঞান এখন খুব ডিস্টার্ব করে। ফেসবুকে সময় দিলে কিছুটা আরাম বোধ হয়। আবার যা, তা-ই । কী করবো?

যে শহরে থাকি সেখানে (জাপানে) বুড়োরা আর মরছে না। বাচ্চারা দিন দিন কমে যাচ্ছে। হঠাৎ শুনলাম, ছাত্রছাত্রীর অভাবে এই শহরে দুটো সরকারী প্রাইমারি স্কুল বন্ধ হয়ে গেছে। বিল্ডিং-এর সবকিছুই আছে শুধু নাই ছাত্রছাত্রী। ছুটে গেলাম পরিত্যক্ত স্কুলভবন দেখতে। মেয়র অফিস জানালো, যদি আমি বিল্ডিং নেই কোন কিছু করার জন্য— আপাতত দুই বছর কোন পয়সাকড়ি দিতে হবে না, ফ্রী।

জাপানিরা এখন নিজেদের দেশটিকে কিছুটা আন্তর্জাতিকীকরণের জন্য ক্ষুদ্র চেষ্টা নিচ্ছে। কিন্তু, কে আসবে এখানে? ভাবছি, বাচ্চাদের স্কুল না দিয়ে বুড়াবুড়িদের মাঝে জ্ঞান দেবো। হাস্যরস জ্ঞান। জাপানিরা এ জ্ঞান থেকে বর্তমানে বিচ্ছিন্ন।

এই যে ধরুন, কোন বাচ্চার ডান হাত ভেঙ্গেছে, কিন্তু প্লাস্টার হয়েছে বাম হাতে। যে দাঁতে পোকা ধরেছে সেটা নয়, ডেন্টিস্ট তুলেছে সুস্থ দাঁত। মানুষ বিপদে পড়লে পুলিশের কাছে যায়— কিন্তু, পুলিশেরাই গুম, খুন করছে মানুষকে। বাচ্চা প্রসবের জন্য হাসপাতাল থেকে বের করে দিলে, মেয়েমানুষ হাসপাতালের সামনের রাস্তায় গিয়ে বাচ্চা বিয়ান দেয়। পুলিশকে ‘স্যার’ না বললে মন খারাপ করে !

আরো যেমন— সরকারী খরচে মন্ত্রিরা তাঁদের বাল-বাচ্চা নিয়ে হজ্জে যায়। দুর্নীতি দমনের অফিসারগণ নিজেরাই দুর্নীতিগ্রস্ত। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে যারা, তারাই গ্রেপ্তার হচ্ছে মাদক ব্যাবসার দায়ে। মাদ্রাসার বুড়া-বুড়া বেটা শিক্ষকেরা ছোট ছোট বাচ্চা ছাত্রদের বলাৎকার করে। এরকম আরও কত কি! এসব গল্প জাপানি বুড়াদের বিনোদন দেবে। জাপানে বুড়াদের নিয়ে এখন ভালো ব্যবসা, এসব বুড়াদের পয়সা অনেক। শুধু অভাব, বিনোদনের! সো…..

চার বছর আগে বন্ধ করে দেয়া একটি প্রাইমারি স্কুলের ছবি ।

জালালুদ্দিন আহমেদ